ধর্ষণ ও হত্যা বন্ধ করতে ইসলামের বিধান সর্বাধিক কার্যকর, মন্তব্য আলমগীর সরদার ও নুরুল ইসলামের

ধর্ষণ ও হত্যা বন্ধ করতে ইসলামের বিধান সর্বাধিক কার্যকর, মন্তব্য আলমগীর সরদার ও নুরুল ইসলামের

বেঙ্গল রিপোর্ট ডিজিটাল ডেস্ক: ধর্ষণ ও হত্যা বন্ধ করতে ইসলামের বিধান চুড়ান্ত ও সর্বাধিক কার্যকর বলে মন্তব্য করলেন জমিয়তে আহলে হাদিসের রাজ্য সম্পাদক আলমগীর সরদার ও চাঁচল কলেজের অধ্যক্ষ ও সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের রাজ্য সভাপতি ড: নুরুল ইসলাম।
দেশজুড়ে চলমান ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলন প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে গণমাধ্যমকে নুরুল ইসলাম বলেন,”ধর্ষণ ও হত্যা মহাপরাধ। প্রাচীন ও সার্বজনীন অপরাধ। পৃথিবীর প্রতিটি দেশে ও প্রতিটি ধর্মে এ অপরাধের শাস্তি সুনির্দিষ্ট। তা সত্বেও এ অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা উত্তরোত্তর কঠিন থেকে কঠিনতর হয়ে গেছে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ছাড়া এ জাতীয় অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়।”

নুরুল ইসলাম আরও বলেন,’ ইসলামী অনুশাসনে ধর্ষণের যে কঠোর শাস্তির বিধান আছে তা যে দেশে আংশিক কার্যকর আছে সেখানে এ অপরাধের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম। কিন্তু ইসলামের প্রতি আজন্ম ঘৃণা ইসলাম বিদ্বেষীদের এ বিধান গ্রহণ করতে নিবৃত করছে। আমি মনে করি, ধর্ষণ ও হত্যা বন্ধ করতে ইসলামের বিধান চুড়ান্ত ও সর্বাধিক কার্যকর।”

জমিয়তে আহলে হাদিসের রাজ্য সম্পাদক আলমগীর সরদার জানান,”ধর্ষণ রোধ করতে হলে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শাসনকে সামনে রাখা যেতে পারে, যে শাসনে পৃথিবীর সকল লোক চক্ষুর অন্তরালে পাপ সংগঠিত হবার পর, পাপের সাজা মৃত্যু জেনেও অকপট স্বীকার করে চূড়ান্ত সাজা অবলীলায় গ্রহণ করেছিল। সে শাসন ছিল অহীর শাসন। সে শাসন ছিল জবাবদিহিতার শাসন। সে শাসন ছিল মনুষ্যত্ব বিকাশের শাসন। শাসকের উচিত আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত করা। সেই সাথে শিক্ষাঙ্গনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন প্রয়োজন। কারণ, আধুনিক শিক্ষায় বৈষয়িক শিক্ষা থাকলেও আত্মিক শিক্ষা থাকেনা। যার ফলে আত্মিক বিকাশ ঘটে না। দৈহিক বিকাশের চাইতে আত্মিক বিকাশের বেশি প্রয়োজন। তাহলেই অপরাধপ্রবণতা কমবে।” আলমগীর সরদারের আরও মন্তব্য,”শাসকদের মৌলিক কাজ সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা। আধুনিক সমাজে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে যে, নিজ দলের লোক অন্যায় করলে সে অন্যায় যেভাবেই হোক আড়াল করা হচ্ছে। এমনটা চলতে থাকলে নারী নির্যাতন কখনোই বন্ধ করা সম্ভব নয়। বরং দোষীদের আইনের আওতায় এনে এমন দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেওয়া দরকার যাতে আর কেউ কখনো নারী নির্যাতন করতে সাহস না পায়। সেই সাথে সাথে নারীদের উচিত এমন শালীনভাবে চলাফেরা করা যাতে অন্যের মনের খোরাক না হতে হয়। পুরুষের দায়িত্ব নারীকে মাতৃত্বের মর্যদা দেওয়া।

Facebook Comments