ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার উত্তরখণ্ডের বিজেপি বিধায়ক

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার উত্তরখণ্ডের বিজেপি বিধায়ক

বেঙ্গল রিপোর্ট ডিজিটাল ডেস্ক: এবার উত্তরাখণ্ডে এক বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, এক মহিলা অভিযোগ জানানোর পর দাওয়ারাবাট থেকে জিতে আসা বিজেপি বিধায়ক মহেশ নিয়োগীকে ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধের দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের কাছে ওই মহিলা অভিযোগ জানিয়েছেন, ২০১৬ সাল থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে বহুবার তাঁকে ধর্ষণ করেছেন এই বিজেপি বিধায়ক।
ধর্ষণের অভিযোগ আনা মহিলা বলেছেন, “আমি পুলিশকে লিখিত ভাবেই জানিয়েছি, আমার সন্তানের ডিএনএ টেস্ট করলেই আসল সত্যি সামনে চলে আসবে। এখন পুলিশ কী করে দেখি। নাহলে আমাকে সরাসরি আদালতের দ্বারস্থ হতে হবে।”

বিধায়কের বিরুদ্ধে ওই মহিলার আরও অভিযোগ, ২০১৬ সালে মায়ের অসুস্থতার জন্য বিধায়কের কাছে গিয়েছিলেন তিনি। সেই থেকেই যোগাযোগ তৈরি হয়। তিনি এও জানিয়েছেন, ২০১৬ থেকে ২০১৮ এই দু’বছর সময়কালের মধ্যে নৈনিতাল, মসৌরি, দিল্লি, হিমাচলপ্রদেশ, নেপাল-সহ বিভিন্ন জায়গায় তাঁকে নিয়ে গিয়েছিলেন বিজেপি বিধায়ক। সেখানেই তাঁর উপর ধর্ষণ চালানো হয়। তাঁর আরও অভিযোগ, বিধায়ক তাঁকে হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, ২৫ লক্ষ টাকা নিয়ে চুপ করে যেতে। এ ব্যাপারে বাইরে কাউকে কিছু না বলতে। দ্বারহাটের এই বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে নেহরু কলোনি থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন ওই মহিলা।

এ ব্যাপারে দেহরাদুনের পুলিশ সুপার শ্বেতা চৌবে বলেছেন, রবিবার আইপিসি ৩৭৬ ও ৫০৬ ধারায় নেহরু কলোনি থানায় নিয়োগীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে স্থানীয় এক আদালতের নির্দেশের পর।

তবে, শুধু নিয়োগীকে নয়, অপরাধ মূলক কাজের জন্য তার স্ত্রী রীতা নিয়োগীকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।
যদিও অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ক নিয়োগী বলেছেন, কংগ্রেস চক্রান্ত করে তাকে মিথ্যা কেসে ফাঁসিয়েছে। গত ১৬ আগস্ট ওই বিধায়কের বিরুদ্ধে এক মহিলা ধর্ষণের অভিযোগ জানিয়েছিল।

Facebook Comments