পালিত শিশুকে পালক বাবার কাছ থেকে ছিনিয়ে অনাথ হোমে পাঠালো সি ডব্লিউ সি: ক্ষোভ জনমানসে

পালিত শিশুকে পালক বাবার কাছ থেকে ছিনিয়ে অনাথ হোমে পাঠালো সি ডব্লিউ সি: ক্ষোভ জনমানসে

সুব্রত গুহ, বেঙ্গল রিপোর্ট, পূর্ব মেদিনীপুর: পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শিশু কল্যাণ সমিতি (সিডব্লুসি)র খামখেয়ালী সিদ্ধান্ত শিশুদের অকল্যাণের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এগরা-২ ব্লকের বাথুয়াড়ী অঞ্চলের কুম্ভধর বাড় গ্রামের নিঃসন্তান দম্পতি সেক বাবুকালাম উদ্দিন ও খালেদা বিবি রামনগর-২ ব্লকের কাদুয়া অঞ্চলের মনিকাবসান গ্রাম থেকে আত্মীয় মারফত খবর পেয়ে গত ১৮সালের ২৬শে ফেব্রুয়ারি বাদামগাছের জঙ্গল থেকে উদ্ধার হওয়া সদ্যোজাত শিশু কণ্যাকে লালনপালনের দায়িত্বভার কাঁধে তুলে নেন। ৫ বছর বিয়ে করার পরেও নিঃসন্তান দম্পতি ফেলে যাওয়া শিশু কন্যাকে পেয়ে স্বর্গের চাঁদ পেয়ে যান।

Deenikart Halal Store

উভয় গ্রামপঞ্চায়েত ও গ্রামবাসীদের সহযোগিতায় তাঁরা শিশুকন্যাকে পালিত সন্ততি হিসাবে গ্রহণ করেন। শিশুকন্যার নাম দেওয়া হয় খুশি খাতুন। বাথুয়াড়ী গ্রামপঞ্চায়েত থেকে প্রদত্ত শিশু কন্যার জন্ম সার্টিফিকেটে বাবা হিসাবে সেক বাবুকালাম উদ্দিন ও মাতা হিসাবে খালেদা বিবি র নামও নথিভূক্ত করা হয়। শিশুকন্যা পরম আদরে নতুন বাবা-মার কাছে বড় হতে থাকে। হঠাৎ করে খুশী খাতুনের জীবনে কালোদিন নেমে আসে। গত ১৮জানুয়ারি শিশু কল্যাণ সমিতির নির্দেশে খুশী খাতুন (প্রায় ২ বছর বয়স) কে পালিত বাবা-মা র কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে ফরিদপুর অনাথ আশ্রমে নিয়ে আসা হয়। পালিত বাবা-মা শিশু কল্যাণ সমিতির সভাপতি দিলীপ দাস সহ প্রশাসনের দুয়ারে দুয়ারে খুশি খাতুন কে ফিরে পাওয়ার জন্য হত্যে দিয়ে বেড়াচ্ছেন। আজও কোন সুরাহা হয়নি।

প্রশাসনিক নির্দেশে এগরা-২ ব্লকের জয়েন্ট বিডিও তদন্ত রিপোর্টে শিশুকন্যা কে পালিত বাবা-মা র কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বললেও শিশু কল্যাণ সমিতির কোন হেলদোল নেই। পরিত্যক্ত শিশু কে উদ্ধার করে লালনপালন করাটাই কি অপরাধ হয়ে গেল? এই রকম ধারণা পালিত বাবা-মা বা জনসাধারণের। প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি হোসেন জেলা শাসক ও জেলা শিশু কল্যাণ আধিকারিককে ই-মেইল বার্তা পাঠিয়ে অবিলম্বে শিশু কন্যা খুশী খাতুন কে পালিত বাবা-মা র কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদন জানিয়েছেন। প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি মামুদ হোসেন বলেন সদর্থক ভূমিকা গ্রহণ না করলে পরিত্যক্ত শিশুদের উদ্ধার করে লালনপালন করার মানবিক উদ্যোগটাই আঘাত প্রাপ্ত হবে।

Facebook Comments