সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্বেষ রুখতে প্রশাসনকে বিশেষ অ্যাপ্লিকেশন তৈরির আহ্বান পীরজাদা সানাউল্লাহ সিদ্দিকীর

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্বেষ রুখতে প্রশাসনকে বিশেষ অ্যাপ্লিকেশন তৈরির আহ্বান পীরজাদা সানাউল্লাহ সিদ্দিকীর

নিজস্ব প্রতিনিধি, বেঙ্গল রিপোর্ট, হাওড়া: ফ্রান্সে বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর বিরুদ্ধে কার্টুন প্রদর্শনীর বিরুদ্ধে হাওড়া জেলার সন্তোষপুরে, ফুরফুরা শরীফ আঞ্জুমানে জমিয়তে উলামার উদ্যোগে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়।

উক্ত প্রতিবাদ সভায় আঞ্জুমানের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পীরজাদা সানাউল্লাহ সিদ্দিকী, তার বক্তব্যের শুরুতেই ফ্রান্স সরকারের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেন এবং নবীপাক সাঃ এর অবমাননাকারীদের তীব্র নিন্দা জানান। সাথে সাথে তিনি নোংরা মানসিকতা লোকদেরকে বিরুদ্ধে জনসাধারণকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তার পর তিনি বাংলার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বলতে গিয়ে বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন রকম মন্তব্যের মাধ্যমে বাংলার সম্প্রীতিকে ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ধর্ম নিয়ে নানান রকম কুরুচিকর মন্তব্য করা হচ্ছে। এ বিষয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রী হস্তক্ষেপের দাবি জানান। তিনি আরো বলেন সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর মন্তব্যের মাধ্যমে যারা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করছে, তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ প্রশাসন কড়া পদক্ষেপ নিক। এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা হোক যার মাধ্যমে দুষ্কৃতীদের খুঁজে বের করা যায়।এর ফলে বাংলার বুকে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকবে বলে তিনি মনে করেন। উক্ত সভায় সমাবেত জাতি – ধর্ম – বর্ণনির্বিশেষে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলার আহ্বান জানান তিনি।

আঞ্জুমানের কার্যকারী সভাপতি পীরজাদা আবু হুরায়রা সিদ্দিকী এদিন বক্তব্য দিতে গিয়ে বলেন, পৃথিবীর ইতিহাসে সর্বশেষ্ঠ আদর্শবান মানব হিসেবে আজ‌ও যার নাম সর্বদা সর্বত্রে ভেসে ওঠে। বিশ্ব মানবতার পথপ্রদর্শক বিশ্ব শান্তির দূত হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর নামে কার্টুন প্রদর্শনী ও অবমাননা কখনোই আমরা মেনে নেব না। আমাদের আন্দোলন এখানে থেমে থাকবে না। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এ বিষয়ে ক্ষমা না চাইলে তাঁর বিরুদ্ধে আমরা পরবর্তীতে বৃহত্তর আন্দোলন চালিয়ে যাব। পীরজাদা আব্দুল কাদের সিদ্দিকী প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, বিশ্বের তাবড় তাবড় বৈজ্ঞানিকরা নবী মোহাম্মদ সাঃ এর ভুল খুঁজতে গিয়ে নবী সাঃ এর জীবন আদর্শে আদর্শিত হয়ে নত স্বীকার করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে।

এছাড়াও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন মাওলানা গোলাম সারোয়ার সাহেব ও ঐ এলাকার পেশ ইমাম সহ এলাকার বিশিষ্টজনেরা। ফ্রান্সের বিরুদ্ধে এদিনের সভায় জনসাধারণের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।উপস্থিত বক্তারা সকলকে ফ্রান্সের সমস্ত পণ্য বয়কটের ডাক দেন।

Facebook Comments