‘শাঁখ বাজালে-কাদা মাখলেই হবে না করোনা’, নিদান দেওয়া বিজেপি সাংসদই এবার আক্রান্ত!

‘শাঁখ বাজালে-কাদা মাখলেই হবে না করোনা’, নিদান দেওয়া বিজেপি সাংসদই এবার আক্রান্ত!

বেঙ্গল রিপোর্ট, ডিজিটাল ডেস্ক: সারা বিশ্বের তাবড় বিজ্ঞানীরা করোনার ভ্যাকসিন তৈরির জন্যে কার্যত প্রাণপাত করে ফেলছেন। কিন্তু এখনও নিশ্চিতভাবে কোনও ভ্যাকসিনই বাজারে আসার জন্যে প্রস্তুত হয়নি। এমন মারাত্মক পরিস্থিতিতেও একের পর এক বিজেপি নেতা-মন্ত্রীরা নানান সব নিদান দিচ্ছিলেন, যা অবৈজ্ঞানিক শুধু নয়, মানুষের জীবন নিয়ে যা ছেলেখেলা করার মতোই অপরাধ। বাদ ছিলেন না বিজেপি সাংসদ সুখবীর সিং জৌনপুরিয়াও। বলেছিলেন, কাদায় গড়াগড়ি খেলে আর শাঁখ বাজালেই হবে না করোনা। নিজে তেমন করেও দেখিয়েছিলেন। কিন্তু কাজ হল না তাতে, সুখবীর সিং নিজেই এবার করোনা আক্রান্ত হলেন।

করোনা পরিস্থিতির মাঝেই নিজের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেন সুখবীর সিং জৌনপুরিয়া। তাতে দেখা যায়, রীতিমতো কাদায় গড়াগড়ি খাচ্ছেন তিনি। সঙ্গে শাঁখও বাজাচ্ছিলেন নাগাড়ে। সেগুলো করেই তিনি দাবি করেন, এই পদ্ধতি মেনে চললে মারণ ভাইরাস করোনা কোনওভাবেই কাছে আসতে পারবে না। অথচ সেই ভিডিয়ো সামনে আসার কিছুদিনের মধ্যেই এবার আক্রান্ত হলেন তিনি নিজেই। যদিও তাঁর করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরই সেই পুরনো ভিডিয়ো আবার ভাইরাল হয়েছে।

উল্লেখ্য, সোমবার থেকেই শুরু হয়েছে সংসদের বাদল অধিবেশন। সেখানে ঢোকার আগেই সমস্ত সাংসদের করোনা টেস্ট হয়। তাতেই ৩০ সাংসদের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। আর ওই ৩০ সাংসদের মধ্যে ছিলেন সুখবীর সিং জৌনপুরিয়াও। তাঁর করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরই অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন, কাদা মেখে আর শাঁখ বাজিয়ে তবে কী লাভ হল?

যদিও বিজেপির এই সাংসদই প্রথম নন, করোনা থেকে কীভাবে ‘বাঁচবেন’, তার উপায় বাতলাতে গিয়ে জলসম্পদ, নদী উন্নয়ন ও গঙ্গা দূষণ দূরীকরণ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল নিয়ে এসেছিলেন ‘ভাবিজি পাঁপড়ের কথা’! দাবি করেছিলেন, ‘পাঁপড় খাও, করোনা ভাগাও!’ আসলে ‘ভাবিজি পাঁপড়’-এর ব্র্যান্ড লঞ্চ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন মেঘওয়াল। সেখানেই তিনি দাবি করেছিলেন, এই পাঁপড় খেলে নাকি শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা দারুণভাবে বেড়ে যায়। কিন্তু সেই দাবি করার কিছুদিনের মধ্যে মেঘওয়াল নিজেই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হন।

তার আগে মধ্যপ্রদেশের ভারপ্রাপ্ত স্পিকার তথা বিজেপি নেতা রামেশ্বর শর্মা দাবি করেছিলেন, অযোধ্যায় ঐতিহাসিক রামমন্দির নির্মাণ শুরু হলেই পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে করোনাভাইরাস। যদিও দেশে করোনা হানার শুরুর পর্ব থেকেই বিজেপি নেতারা একের পর এক উদ্ভট দাবি সামনে এনেছিলেন। গোমূত্র খেয়েও করোনা রোখার কথা বলেছিলেন অনেক বিজেপি নেতাই। এমনকী কলকাতায় গোমূত্র পানের অনুষ্ঠানও করা হয়েছিল।

Facebook Comments