১১ জানুয়ারি কৃষি আইন নিয়ে শুনানি সুপ্রিম কোর্টে

১১ জানুয়ারি কৃষি আইন নিয়ে শুনানি সুপ্রিম কোর্টে

ডিজিটাল ডেস্ক, বেঙ্গল রিপোর্ট: অচলাবস্থা কাটাতে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত নিল দেশের শীর্ষ আদালত। কৃষি আইন নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ও আন্দোলনরত কৃষকদের মধ্যে বিস্তর আলোচনা হয়েছে। কিন্তু এখনও অবধি কোনও সমাধান সূত্র বেরোয়নি। দু’পক্ষই নিজের নিজের দাবিতে অনড়। আর তাই এবার এই অচলাবস্থা কাটাতে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত নিল দেশের শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ বুধবার জানালো যে আগামী ১১ জানুয়ারি, সোমবার তাঁরা এই আইন সংক্রান্ত সমস্ত বিষয় নিয়ে দু’পক্ষের কথা শুনবেন। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে যে সরকার ও কৃষক দু’পক্ষই বহুবার আলোচনার টেবিলে বসলেও এখনও পর্যন্ত পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি। কেন্দ্রের তরফে শীর্ষ আদালতকে জানানো হয় যে বিষয়টি নিয়ে কৃষকদের সঙ্গে তাদের গঠনমূলক আলোচনা চলছে ও আগামী দিনে সমাধান সূত্র যে বেরোবে, সে আশা করায় যায়।

আইনজীবী এমএল শর্মার দায়ের করা কৃষি আইনের বিরুদ্ধে একটি আবেদনের শুনানির সময় সরকারের অবস্থান জানতে চায় আদালত। শর্মা তাঁর আবেদনে জানান যে এই ধরনের আইন প্রণয়নের কোনও সাংবিধানিক যুক্তি সরকারের কাছে নেই। বেঞ্চের তরফে জানানো হয় যে শুধুমাত্র এই কৃষি আইন সংক্রান্ত বিষয় নয়, বাকি যে সব বিষয়গুলি নিয়ে কৃষকরা আন্দোলন করছেন, সেই সবকটি বিষয়ই তাঁরা একসঙ্গে ১১ তারিখ শুনবেন। কেন্দ্রের তরফে অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেনুগোপাল শীর্ষ আদালতে জানান যে আগামীতে দুই পক্ষের মধ্যে একটি সমাধান সূত্রে আসার বিস্তর সম্ভাবনা রয়েছে। এই অবস্থায় যদি আদালতে সরকারের অবস্থান ব্যক্ত করতে হয়, তাহলে এই আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার প্রবণতা থেকে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, কৃষি আইনের বিরুদ্ধে গত দেড় মাস ধরে দিল্লির বিভিন্ন সীমানায় কনকনে ঠাণ্ডা ও বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। একদিকে কৃষকরা যেমন এই তিনটি আইন প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছেন, তেমনই সরকারের তরফেও তাদের বলা হয়েছে যে এই আইন কোনও মতেই প্রত্যাহার করা হবে না। ফলে আগামী দিনে আন্দোলন আরও জোরদার করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কৃষকরা।

Facebook Comments