তৃণমূলের মালদা জেলা সভাপতি পদ এবার ছাড়তে চাইছেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ মৌসম নুর

তৃণমূলের মালদা জেলা সভাপতি পদ এবার ছাড়তে চাইছেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ মৌসম নুর

সুব্রত গুহ, বেঙ্গল রিপোর্ট: এবার মালদা জেলা তৃণমূল সভাপতির পদ ছাড়তে চাইছেন মৌসম নুর। ইতিমধ্যে একাধিক বার দলের উচ্চ নেতৃত্বকে নিজের ইচ্ছার কথা জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

সূত্রের খবর, নিজের ইচ্ছের কথা মঙ্গলবার আরও একবার কলকাতায় দলীয় নেতৃত্বকে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে শুভেন্দু জট কাটতে না কাটতেই নিজের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে জল্পনা বাড়িয়েছেন ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্তও। এর আগে মালদা নিয়ে অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের ডাকা বৈঠকে অনুপস্থিত ছিলেন খোদ মৌসম বেনজির নূর। সূত্রের খবর, কংগ্রেস থেকে দলে এসেই প্রথমে লোকসভায় দলীয় প্রার্থী, পরে দলীয় সভাপতি ও রাজ্যসভার সাংসদ করায় এই জেলায় তৃণমূলের একাংশ ক্ষুব্ধ। বিশেষ করে মৌসমকে সভাপতি করায় দলেরই পুরনো একটা বড় অংশ তা মানতে নারাজ।

সূত্রের খবর, অনেকক্ষেত্রেই মৌসমের নির্দেশ মানছেন না এই বিক্ষুব্ধরা। পাশাপাশি, মৌসমকে সভাপতি করা হলেও, জেলায় একাধিক কো-অর্ডিনেটর থাকায় এককভাবে তিনি কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। স্বাধীনভাবে কাজ করতে না পারায়, ঘনিষ্ঠ মহলে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন মৌসম। বিশেষ করে তিনি ”ঢাল নেই তলোয়ার নেই নিধিরাম সর্দার” হয়ে কাজ করতে চাইছেন না।

সূত্রের মাধ্যমে আরও জানা গিয়েছে, এমনিতেই এই জেলায় তৃণমূল কার্যত ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। মূল লড়াই কংগ্রেস-বাম জোট বনাম বিজেপির মধ্যে ফলে পরিস্থিতি এমন যে গনি গড়ে মমতাকে শূন্যহাতেও ফিরতে হতে পারে। আর সেই দায় নিতে রাজী নন মৌসম। জেলায় সংগঠনের অব্স্থা খারাপ। আর এই রোগ সারাতে বারবার তৃণমূল রাজ্য নেতৃত্ব সব গোষ্ঠীকে একসাথে কাজ করার নির্দেশ দিলেও, তা যে এককথায় অসম্ভব মেনে নিচ্ছেন মৌসম। মালদা তৃণমূলের মতে, কার্যত হাল ছেড়েই দলীয় সভাপতির পদ ছাড়তে চান মৌসম।

Facebook Comments