পূর্ব মেদিনীপুরের এগরার পাঁচরোলে তৃণমূলের নেতার নামে ‘মাথা চাই’ পোস্টারে ব্যাপক চাঞ্চল্য

পূর্ব মেদিনীপুরের এগরার পাঁচরোলে তৃণমূলের নেতার নামে ‘মাথা চাই’ পোস্টারে ব্যাপক চাঞ্চল্য

সুব্রত গুহ, বেঙ্গল রিপোর্ট,পূর্ব মেদিনীপুর: বিধানসভা ভোটের মুখে তৃনমূল নেতার মাথা চেয়ে পোস্টার পড়লো পূর্ব মেদিনীপুরের এগরার পাঁচরোল এলাকায়। মাওবাদীদের কায়দায় তৃণমূল নেতার নামে ‘মাথা চাই’ পোস্টার পড়ার ঘটনা সকালে নজরে আসতেই রীতিমতো গোটা এলাকা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পোস্টার নজরে আসার পরেই তৃনমূল ও বিজেপি নেতাদের মধ্যে শুরু হয়েছে তরজা। বিজেপির দাবি, গত দশ বছরে তৃনমূল নেতারা দুর্নীতির পাহাড় বানিয়েছে। মানুষের মধ্যে ক্ষোভ আছে। এটা তারই বহিঃপ্রকাশ। যদিও তৃনমূলের দাবি, এই ঘটনা বিজেপির পূর্ব পরিকল্পিত।

তৃনমূল অভিযোগ করেছে নির্বাচনের আগে এলাকায় সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরী করতেই এই কান্ড বিজেপির।এগরার পাঁচরোল অঞ্চল তৃণমূলের সভাপতি অশোক দাসের ‘মাথা চাই’ নামে পোস্টার সাঁটানো হয়েছে। সকালে এলাকার কসবাগোলা, রায়দা, বাগমারি প্রভৃতি গ্রামে বিদ্যুতের খুঁটিগুলিতে এই পোস্টারগুলি দেখতে পান এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দারা। সামগ্রিকভাবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনাটা জানার পরেই অশোকবাবু এগরায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অশোকবাবুর বাড়ি এগরায় পাঁচরোল তেঁতুলমুড়ি গ্রামে। এনিয়ে তৃনমূল নেতা অশোক দাস বলেন, ” আমি এই ঘটনার পর থেকে খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। আমিএলাকায় তৃণমূলের সংগঠন বাড়ানোর পাশাপাশি মিটিং-মিছিলে অংশ নিচ্ছি বলেই বিজেপির লোকজন রাজনৈতিক চক্রান্ত করে এসব করেছে। থানায় অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি পুলিশকে গোটা ঘটনার তদন্ত এবং দোষীদের চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছি”।

বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী বলেন, “তৃণমূলের নেতারা নানা প্রকল্পে প্রচুর দুর্নীতি করেছেন এবং কাটমানি নিয়েছেন। তাই বিভিন্ন জায়গায় মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে। এসবের সঙ্গে বিজেপির কোনও যোগই নেই।“

Facebook Comments