জেলা ও মফস্বলের হকারদের হকার অনুদানে বঞ্চনার অভিযোগে সিটুর ডেপুটেশন

জেলা ও মফস্বলের হকারদের হকার অনুদানে বঞ্চনার অভিযোগে সিটুর ডেপুটেশন

সুব্রত গুহ, বেঙ্গল রিপোর্ট ,পূর্ব মেদিনীপুর: পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার ৮১ হাজার হকারকে ২০০০ টাকা করে পুজা অনুদান প্রদান করার কথা ঘোষণা করেছেন। শুধু কোলকাতা মহানগরীতে নথিভূক্ত হকারদের সংখ্যা প্রায় ১লক্ষ ৫০ হাজার। তাহলে কোলকাতার প্রায় ৬৯ হাজার হকার পুজা অনুদান থেকে বঞ্চিত হবেন। সুতরাং বিভিন্ন জেলা ও মহকুমা সহ বিভিন্ন এলাকার লক্ষ লক্ষ হকার পুজা অনুদান পাওয়ার কোন সংস্থান নেই। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সমস্ত মহকুমা,থানা,ব্লক ও গঞ্জের লক্ষ লক্ষ হকার পুজা অনুদান থেকে বঞ্চিত থাকছেন।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি ও এগরা মহকুমার বিভিন্ন শহর ও ব্লক এলাকায় কয়েক লক্ষ হকারদের পুজা অনুদান বরাদ্দের দাবীতে সিআইটিইউ আজ কাঁথির সহকারী লেবার কমিশনার দপ্তরে ডেপুটেশন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন কর্মসূচি তে নেতৃত্ব দেন সিআইটিইউ নেতা হরপ্রসাদ ত্রিপাঠী, মামুদ হোসেন, কানাই মুখার্জি, জয়দেব পণ্ডা, মাণিক জানা, সলিল বরণ মান্না, বিদ্যুৎ দে, ট্রেড ইউনিয়ন নেতা সেক হোসেন আলি প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। সিআইটিইউ নেতা মামুদ হোসেন বলেন,” কাঁথি ও এগরা মহকুমা র হাজার হাজার বেকার যুবক ও কর্মহীন মানুষজন হকারী কে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন। কাঁথি শহরে কয়েক হাজার হকার রয়েছেন।
কলকাতার হকারদের পুজা অনুদান দেওয়া হবে অথচ জেলা ও মফস্বল এলাকার হকারেরা পুজা অনুদান থেকে বঞ্চিত হবেন কেন।” মামুদ হোসেনের আরও অভিযোগ, “বলেন বর্তমান রাজ্য সরকার মা-মাটি-মানুষের কথা মুখে বলেন। গ্রামবাংলার হকার ও কর্মহীন শ্রমিকদের নিয়ে কোন ভাবনাই নেই।”

জেলা, মহকুমা ও ব্লক তথা মফস্বল এলাকার হকারদের পুজা অনুদান প্রদানের দাবীতে সিআইটিইউ জোরদার আন্দোলনে নামবে বলে জানান সিআইটিইউ নেতা হরপ্রসাদ ত্রিপাঠী।

Facebook Comments