দশ দফা দাবি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির দারস্থ হতে চলেছেন ত্বহা সিদ্দিকী

দশ দফা দাবি নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর দারস্থ হতে চলেছেন ত্বহা সিদ্দিকী

আরিফুল ইসলাম, বেঙ্গল রিপোর্ট, হাওড়া: হাওড়া জেলার বাগনান থানার ছয় নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে মানকুর মোড়ে মোজাদ্দেদিয়া অনাথ ফাউন্ডেশনের বাগনান শাখা কমিটির উদ্যোগে, রবিবার বিশ্ব নবী (সাঃ) দিবস উদযাপন উপলক্ষে এবং নবী মোহাম্মদ সাঃ কে অবমাননাকারী ফ্রন্সের বিরুদ্ধে ধিক্কার ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সম্পূর্ণ সভাটি সুষ্ঠভাবে পরিচালনা করেন কাজী জালাল উদ্দিন।

উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষক ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী সাহেব ও পীরজাদা নুরুল্লাহ সিদ্দিকী সাহেব ও আমতা বিধানসভার বিধায়ক অসিত বরণ মিত্র।

এছাড়াও বিভিন্ন স্থান থেকে আগত অতিথিরা বক্তব্য রাখেন অনাধ ফাউন্ডেশন ও ত্বহা সিদ্দিকীর প্রশংসা করে সেই সঙ্গে বিশ্ব নবী সাঃ এর আত্মকাহিনী তুলে ধরেন, ফ্রান্সের বিরুদ্ধে গর্জেওঠেন যতিন মুখার্জি, সেখ সেলিম, কুতুবুদ্দিন তরফদার, হাফেজ আব্দুল অহেদ, নাজিরুদ্দিন চাঁদু ভাই, বাসারত মল্লিক প্রমুখ।

নুরুল্লাহ সিদ্দিকী দশ দফা দাবির লিখিত কপি তুলে দিচ্ছেন ত্বহা সিদ্দিকীর হাতে: নিজস্ব চিত্র

পীরজাদা নুরুল্লাহ সিদ্দিকী ফুরফুরা শরীফের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্য রাখেন। ফুরফুরা অনুগামীদের উদ্দেশ্যে বলেন ভ্রান্ত ধারণায় কেউ পা দেবেন না। কোন পীরজাদা আপনাদেরকে ভুল পথে নিয়ে গেলে আপনারা মেনে নেবেন না। ফুরফুরা শরীফের অনুগামীদের উদ্দেশ্যে তিনি ঐক্যের বার্তা দেন। রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প কে কটাক্ষ করতে দেখা যায় নুরুল্লাহ সিদ্দিকে। তিনি বলেন প্রকল্পের প্রয়োজন নেই মানুষের, মানুষের প্রয়োজন কর্মসংস্থান ও চাকরি। রাজ্যের বিগত দিনের সরকারের চেয়ে আপনি অনেক কাজ করেছেন দিদি কিন্তু এখনো আমাদের বেশকিছু দাবি দাওয়া পুরণ করেননি। লক্ষ্য লক্ষ্য যুবকরা ডিগ্রী নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে, তাদের চাকরির ব্যবস্থা করে দিন। বক্তব্যের মাঝে তিনি দশ দফা দাবির লিখিত কপি পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকীর হাতে তুলে দিয়ে বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে আমাদের এই দাবি মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দিতে। দাবিতে মূলত, রাজ্যের ইমাম মোওয়াজ্জিন, শিক্ষক নিয়োগ ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নাগরিকদের উন্নয়ন ও কল্যাণ মূলক কাজ করার জন্য সভা থেকে দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

তিনি রাজ্য সরকারকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমাদের দাবি না মানলে সামনে ২০২১ বিধানসভা ভোটে আমরা তার জবাব দিয়ে দেবো।

পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী বলেন এই বাংলায় সাম্প্রদায়িক আর এস এস ও বিজেপির কোন স্থান নেই। তিনি বামপন্থীদের কটাক্ষ করে বলেন, ৩৪ বছরে সিপিএম রাজ্যের মানুষের জন্য কিছুই করেনি। নাম না করে বলেন রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিকে সুবিধা করে দিতে উঠে পড়ে লেগেছে দু-একটি দল। তাঁরা জানে না ফুরফুরার ভক্তদের দের ঐক্যবদ্ধ হাত কতটা মজবুত। রাজ্যে মা মাটি মানুষের তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃতীয় বারের জন্য সরকার গঠন কেবল মাত্র সময়ের অপেক্ষা। বাংলার সংস্কৃতি লোকাচার কালচার পারস্পরিক ঐক্যবদ্ধ সম্পর্ক তথা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে সকলকে। তিনি রাজ্য সরকারকে সতর্ক করেন ফুরফুরার উন্নয়ন ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নাগরিকদের উন্নয়ন ও কল্যাণ সম্পর্কে। এদিনের সভায় থেকে তিনি অঙ্গীকার করেন আমার ভাইপো তথা পীরজাদা নুরুল্লাহ সিদ্দিকী আজকে আমার হাতে যে ১০ দফা দাবি তুলে দিয়েছে সেটি কারো মাধ্যমে নয় বরং আমি নিজে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দেবো।

অনুষ্ঠান শেষে, বিশ্ববাসীর সুখ শান্তি সমৃদ্ধি মঙ্গল ও ঐক্যবদ্ধ জীবন যাপন জীবিকা নির্বাহের জন্য বিশেষ দোওয়া (মোনাজাত) প্রার্থনা করেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী সাহেব।

Facebook Comments