তিন মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে ত্রিপুরা ভবনে ডেপুটেশন দিল যুব ফেডারেশন

তিন মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে ত্রিপুরা ভবনে ডেপুটেশন দিল যুব ফেডারেশন

বিশেষ সংবাদদাতা, বেঙ্গল রিপোর্ট, কলকাতা: গত সপ্তাহে ত্রিপুরার খোয়াই জেলায় ৩ মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে, দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুলে সল্টলেক ত্রিপুরা ভবনে করোনা পরিস্থিতি মেনে ডেপুটেশন দিল সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন। সম্প্রতি ত্রিপুরা রাজ্যের সিপাহজালা জেলার সোনামুড়া মহাকুমার বাসিন্দা জায়েদ হোসেন(৩০), বিল্লাল মিঞা (২৮), সাইফুল ইসলাম (১৮), তিনজনকে গোবলয়ে গোরক্ষকদের ধাঁচে পিটিয়ে মারা হয়।

সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহঃ কামরুজ্জামান এক বিবৃতিতে জানান গোবলয়ে মুসলিম যুবকদের পিটিয়ে মারা এক নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনা, কিন্তু পূর্ব ভারতে এই সংস্কৃতি ছিল না, ত্রিপুরার ঘটনা নিয়ে যদি সরকার কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ না করে তাহলে এ ঘটনা উত্তরোত্তর বাড়তে থাকবে। তাই আমাদের দাবি অপরাধীদের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের নজরদারিতে কঠোর আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। নিহত তিন ব্যক্তির পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকার আর্থিক ক্ষতিপূরণ ও একজন করে সরকারি চাকরি দিতে হবে। ত্রিপুরায় গণপিটুনি বিরোধী কঠোর আইন প্রণয়ন করতে হবে। ত্রিপুরাতে সংখ্যালঘু মানুষের নিরাপত্তা ও ধর্ম পালনের স্বাধীনতা সুনিশ্চিত করতে হবে।

এদিন সল্টলেকের ত্রিপুরা ভবনে ডেপুটি রেসিডেন্ট কমিশনার দিপরাজ রায় ডেপুটেশন গ্রহণ করে বলেন ঘটনা নিয়ে রীতিমতো রাজ্যের প্রশাসন কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আপনাদের দাবি সমূহ আমরা ত্রিপুরা সরকারকে দ্রুত পৌঁছে দেব এবং আশা করব সরকার এ নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এদিন প্রতিনিধিদলে মহঃ কামরুজ্জামানের সঙ্গে ছিলেন সংগঠনের কোষাধ্যক্ষ বাবর হোসেন, সহ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শিক্ষক আলি আকবর ও জসিম মোল্লা।

বিঞ্জাপন
Facebook Comments